বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

জঙ্গি ও জঙ্গিবাদের জাদু দেখিয়ে অবৈধ সরকরের শেষ রক্ষা হবে না -শফিউল আলম প্রধান

২০ দলীয় জোট নেতা ও জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান বলেছেন বাংলাদেশে জঙ্গি থাকলে থাকতেও পারে। তবে জঙ্গিবাদ বলে কিছু নাই। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সঠিকভাবে তল্লাশি চালালে গুলিস্তান থেকে বঙ্গবাজার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সর্বত্রই বন্দুকধারী জঙ্গি খুঁজে পাবেন। এদের অধিকাংশই ক্ষমতাসীন দলের সোনার ছেলে। র‌্যাব, পুলিশ ভাইয়েরাও জানেন এসকল ক্ষেত্রে তারা অসহায় এবং এতিম। প্রধান বলেন- জঙ্গিবাদ, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার লীলাখেলায় পরিণত হয়েছে। অগণতান্ত্রিক ও অবৈধ শাসন কায়েম রাখতে কথিত জঙ্গিবাদই এখন একমাত্র হাতিয়ার। হিন্দুস্থান-পাকিস্তান কোথা থেকে জঙ্গি ও গোলাবারুদ আমদানি রফতানি হয়, একজন রিক্সাওয়ালা ও পান বিড়িওয়ালাও তা জানে। র‌্যাব ও পুলিশ ভাইদের আবেদন জানিয়ে তিনি বলেন জালিম শাহী কায়েম রাখতে নারী-শিশু হত্যার মত দায় মেহেরবানী করে নিবেন না। দুনিয়াদারীর বাইরেও আখিরাত আছে।
প্রধান আরও বলেন, বাংলার মানুষ ও মুসলমানেরা কখনোই জঙ্গিবাদের পথে হাঁটেন নাই। জালিম শাহী মোকাবেলায় তারা চিরকাল গণবিপ্লব ও গণঅভ্যুত্থানের পথ বেছে নিয়েছেন। সুতরাং জঙ্গি ও জঙ্গিবাদের জাদু দেখিয়ে অবৈধ সরকারের শেষ রক্ষা হবে না।
তিনি বলেন কথিত সাম্প্রদায়িকতার কথা বলে বিদেশী প্রভুদের নেক নজর ও উপঢৌকন পাওয়া যেতে পারে। তবে এ ভূ-খণ্ড কখনোই সাম্প্রদায়িক নয়। যা কিছু হয় এবং হয়েছে তা ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগেরই সোনালী ফসল। বাংলাদেশ হিন্দুস্থান নয়, এদেশের মানুষ বাবরী মসজিদ ভাঙ্গে নাই, গুজরাটে নৃশংসভাবে মুসলিম গণহত্যা করে নাই। এখানে দমে দমে রায়ট হয় না। সুতরাং যারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নসিয়ত করেন তারা হিন্দুস্থানে হিযরত করুন এবং সেখানকার উগ্র সাম্প্রদায়িক নেতাদের নসিয়ত করুন, বাংলাদেশের বদনাম করবেন না।
৪ঠা জানুয়ারি জাগপা ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী সফল করার লক্ষ্যে গতকাল সোমবার বিকাল ৪টায় আসাদগেট দলীয় কার্যালয়ে ছাত্র প্রতিনিধিদের সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জাগপা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল আলম এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রুবেলের পরিচালনায় প্রধান বক্তা ছিলেন জাগপা সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার লুৎফর রহমান। বক্তব্য রাখেন যুব জাগপা’র সভাপত্বি ফাইজুর রহমান, জাগপা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি নাহিদ হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহমান ফারুকী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শ্যামল চন্দ্র সরকার, মিনহাজ প্রধান রাব্বী, নগর জাগপা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের রহমান, ছাত্র নেতা মাসুম বিল্লাহ প্রমুখ।
প্রধান বক্তার বক্তব্যে জাগপা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান- ৭১, ৭৪ ও ৯০ এর মতো গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা রক্ষায় ছাত্রদের ঐক্যবদ্ধ সংগ্রাম গড়ে তোলার আহ্বান জানান।  প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ