সোমবার ১৯ এপ্রিল ২০২১
Online Edition

ইরানে যৌথ ইউরিয়া সার কারখানা করবে বাংলাদেশ

স্টাফ রিপোর্টার : ইরানের চাবাহার সমুদ্র বন্দরের নিকটবর্তী শিল্পাঞ্চলে বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ বিনিয়োগে একটি ইউরিয়া সার কারখানা স্থাপনের আগ্রহ দেখিয়েছে ইরান। এছাড়া চট্টগ্রামে একটি এলএনজি প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিনিয়োগ করতে যাচ্ছে ইরান।

গতকাল বৃহস্পতিবার শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সাথে বৈঠকে বাংলাদেশে নিযুক্ত ইরানের রাষ্ট্রদূত ড. আব্বাস ভেইজি দেহনাভি এ আগ্রহের কথা জানান। শিল্প মন্ত্রণালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

 বৈঠকে বিসিআইসি’র চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইকবাল ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক মাসুদুর রহমানসহ বাংলাদেশে ইরান দূতাবাসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 বৈঠকে বাংলাদেশ ও ইরানের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির বিষয়ে আলোচনা হয়। এ সময় দু’দেশের মধ্যে বিনিয়োগ ও ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে যৌথ অর্থনৈতিক কমিশনের কার্যক্রম চালুর বিষয়ে ঐকমত্য হয়।

বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী ইরান থেকে জি-টু-জি পদ্ধতিতে ইউরিয়া সার আমদানির আগ্রহ ব্যক্ত করলে ইরান এতে সম্মত রয়েছে বলে রাষ্ট্রদূত জানান। এ সময় শিল্পমন্ত্রী এক মাসের মধ্যে এ প্রক্রিয়া শুরু করার পরামর্শ দেন। পাশাপাশি তিনি চট্টগ্রামে এলএনজি প্রকল্প বাস্তবায়নে ১৫ দিনের মধ্যে একটি সমন্বিত প্রস্তাব পেশের জন্য রাষ্ট্রদূতের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, ইরানের সাথে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। এ সম্পর্ক আরো গভীর করতে দু’দেশের মধ্যে বিনিয়োগ ও সফর বিনিময় বাড়ানো প্রয়োজন। এ লক্ষ্যে তিনি বাংলাদেশের সাথে ইরানের সরাসরি বিমান ফ্লাইট চালুর প্রস্তাব করেন। এছাড়া, তিনি ইরানের ইস্পাহান নগর এবং বরিশাল নগরির মধ্যে সিস্টার সিটির সম্পর্ক গড়ে তোলার তাগিদ দেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, এর মাধ্যমে দু’দেশের পর্যটন শিল্পখাত বিকশিত হবে।

ইরানের রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের শিল্পখাতে অর্জিত সাম্প্রতিক সাফল্যের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশে শিল্পখাতের আধুনিকায়ন ও ভারী শিল্পের বিকাশে ইরান প্রযুক্তিগত সহায়তা দিতে আগ্রহী। তিনি ঢাকা বাণিজ্য মেলায় ইরানী উদ্যোক্তাদের জন্য স্টলের সংখ্যা বাড়ানোর প্রস্তাব দেন। শিল্পমন্ত্রী জানান, এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সাথে আলোচনা করে দ্রত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ