ঢাকা, বুধবার 21 October 2020, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

যৌনকর্মী বলায় মামলা করলেন ট্রাম্পের স্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক: 'যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী মেলেনিয়া নব্বইয়ের দশকে যৌনকর্মী ছিলেন' এমন তথ্য পরিবেশন করায় ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইল এবং ওই পত্রিকার ব্লগারের বিরুদ্ধে ১৫ কোটি ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে মানহানির মামলা করেছেন মেলেনিয়া ট্রাম্প।  

তবে ডেইলি মেইল এবং ওই ব্লগার মার্কিন নাগরিক ওয়েবস্টার টারপ্লি ইতিমধ্যে মেলেনিয়াকে নিয়ে লেখা প্রতিবেদন প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

মেলেনিয়ার আইনজীবী চার্লস হার্ডার ওই পত্রিকায় ও ব্লগারের প্রকাশিত তথ্যকে ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা’ বলে উল্লেখ করেছেন। এক বিবৃতিতে আইনজীবী হার্ডার বলেন, বিবাদীরা মেলেনিয়ার বিরুদ্ধে কয়েকবারই এ ধরনের বক্তব্য দিয়েছে, যা শতভাগ মিথ্যা। এ ধরনের অভিযোগ তাঁর ব্যক্তিগত ও পেশাজীবনের ভয়াবহ ক্ষতি করছে। মেলেনিয়ার প্রতি বিবাদীদের আচরণ এতটাই কুরুচিপূর্ণ, বিদ্বেষপরায়ণ এবং ক্ষতিকর ছিল যে, এতে তাঁর ভয়াবহ ক্ষতি হয়েছে। অর্থের অঙ্কে যা ১৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে।

মেলেনিয়ার পক্ষে আইনজীবী হার্ডার মেরিল্যান্ডের একটি আদালতে এই ক্ষতিপূরণ মামলা দায়ের করেছেন।

ডেইলি মেইলে স্লোভেনিয়ার একটি সাময়িকী ও একজন সাংবাদিকের বরাত দিয়ে মেলেনিয়াকে নিয়ে লেখা হয়, নিউইয়র্কে মেলেনিয়া খণ্ডকালীন ‘এসকর্ট’ হিসেবে কাজ করতেন। ১৯৯৫ সালে তিনি নগ্ন ছবির জন্য পোজ দেন। ওই বছরই ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর দেখা হয়। যদিও বলা হয়ে থাকে, ১৯৯৮ সালে তাঁরা পরিচিত হন।

আর ওই ব্লগার লেখেন, জনসম্মুখে অতীত প্রকাশ হয়ে যাওয়ার ভয়ে থাকতেন মেলেনিয়া।

৪৬ বছর বয়সী মেলেনিয়ার জন্ম স্লোভেনিয়ায়। নব্বই দশকে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান। ১৯৯০ সালে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে মডেল হিসেবে কাজ করেন। ২০০৫ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়। মেলেনিয়া ডোনাল্ড ট্রাম্পের তৃতীয় স্ত্রী। -বিবিসি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ