শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

আশিয়ান মেডিকেল কলেজের অনুমোদন স্থগিত

স্টাফ রিপোর্টার : আশিয়ান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া শিক্ষা অনুমোদন স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে আশিয়ান মেডিকেল কলেজের নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখতে কলেজের অধ্যক্ষকে নির্দেশ   দেয়া। পাশাপাশি আদালত দুটি রুলও জারি করেছেন।

এক রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। গত রোববার রিট আবেদনটি দায়ের করে স্বদেশ প্রপার্টিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোঃ মুজিবুর রহমান চৌধুরী। রিট আবেদনে অভিযোগ করা হয় ‘আশিয়ান সিটি স্বদেশ হাউজিং কোম্পানীর খিলক্ষেত থানার বরুয়া মৌজায় প্রায় ২০.৬ বিঘা জমি জবরদখল করে তথাকথিত আশিয়ান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল গড়ে তুলেছে মেডিকেল  কলেজকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেয়া নীতিগত ও একাডেমিক অনুমোদন কেন বাতিল করা হবে না জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়। এছাড়াও অনুমোদনহীন ভবন নির্মাণ বন্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না তা জানাতে বলা হয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যানকে। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, সিনিয়র সহকারী সচিব, রাজউক চেয়ারম্যান ও আশিয়ান সিটির অধ্যক্ষকে রুলের এই জবাব দিতে বলা হয়েছে।

রিট আবেদনের পক্ষে ছিলেন এডভোকেট মোঃ দেলোয়ার হোসেন ও এডভোকেট সালমা বেগম।

আইনজীবী দোলোয়ার হোসেন জানান, বেসরকারি মেডিকেল কলেজ স্থাপন ও পরিচালনা নীতিমালা ২০১১ (সংশোধিত) লংঘন করে এ অনুমোদন দেয়া হয়েছে। কারণ নীতিমালার  ২.২ এ রয়েছে, সর্বনি¤œ ৫০ জন ছাত্র-ছাত্রীর আসন বিশিষ্ট বেসরকারী মেডিকেল কলেজ স্থাপনের জন্য মেট্রোপলিটন সিটি এলাকায় কমপক্ষে কলেজের নামে দুই একর জমি অথবা নিজস্ব জমিতে একাডেমিক ভবনের জন্য এক লাখ বর্গফুট জায়গা থাকতে হবে। যা আশিয়ান সিটির নেই। আশিয়ানের জমি আছে তবে, পরিমাণে কম। 

তিনি আরো জানান, কলেজের অনুমোদন নেয়ার সময় মন্ত্রণালয়ের পরিদর্শন কমিটির রিপোর্টে ৯ তলা ভবনে ২ লাখ বর্গফুট সম্পূর্ণ ফোর স্পেসে একাডেমিক কাযক্রমের বিভিন্ন বিভাগ সাজানো হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়। বাস্তবে তাদের নয়তলা ভবন নেই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ